আগামী ২ সপ্তাহ ধরে চলবে ‘বিক্রম’ এর খোঁজ, জানালেন কে. শিবান

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্ক: লক্ষ্য ছিল চাঁদের দক্ষিণ মেরু স্পর্শ করা। কিন্তু চাঁদের মাটি ছোঁয়ার ২.১ কিমি আগেই বিজ্ঞানীদের সাথে যোগাযোগ স্থাপনে ব্যর্থ হয়েছে ‘চন্দ্রযান-২’ এর ল্যান্ডার ‘বিক্রম’। লক্ষ্যের এতো নিকটে পৌঁছেও ১০০ শতাংশ সফলতা না পাওয়ায় মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েন ISRO-র চেয়ারম্যান কে. শিবান। কিন্তু সাময়িক ভেঙে পড়লেও হার মেনে নেওয়ার মানুষ নন তিনি, কৃষক পরিবার থেকে কঠোর পরিশ্রম করে আজ ISRO-র চেয়ারম্যান, সুতরাং কঠিন পরিস্থিতির মোকাবিলা করার অভিজ্ঞতা তাঁর চেয়ে বেশী হয়তো কারও নেই।

ল্যান্ডার ‘বিক্রম’ এবং রোভার ‘প্রজ্ঞান’ বিনষ্ট হয়ে গেলেও, ISRO-র বাকি ৯৫ শতাংশ স্বাভাবিক ভাবেই নিজেদের কাজ শুরু করেছে। একারণে বর্তমানে খুশীর আলো দেখেছে ISRO-র বিজ্ঞানীরা। কিন্তু ওই ৫ শতাংশও ছোট করে দেখবেনা ISRO। এই উদ্দেশ্যে আগামী ২ সপ্তাহ ধরে চলবে ল্যান্ডার ‘বিক্রম’ এর খোঁজ, সম্প্রতি এমনটাই ঘোষণা করলেন ISRO-র চেয়ারম্যান কে শিবান। এর শেষ না দেখে হাল ছাড়তে নারাজ তিনি।

সম্প্রতি ISRO-র তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, পূর্বের তুলনায় অত্যন্ত জটিল অভিযান ‘চন্দ্রযান-২’। প্রথম ‘চন্দ্রযান’-টির তুলনায় প্রযুক্তিগতভাবে অনেকটাই এগিয়ে এটি। এই অভিযানে চন্দ্রযানের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছিল অরবিটার, ল্যান্ডার এবং রোভার।

এছাড়াও জানা যাচ্ছে, চন্দ্রাভিযানে ISRO-র ন্যায় হাই রেজোলুশনের (০.৩এম) ক্যামেরা এর আগে কেউ অরবিটারে ব্যবহার করেনি। ল্যান্ডার ‘বিক্রম’ এর অবতরণে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি এবং সেন্সরের সাহায্য নেওয়া হয়েছে। যেখানে অরবিটারের আয়ু ১ বছর অনুমান করা হয়েছিল, তা বেড়ে সাড়ে ৭ বছর হয়েছে। এছাড়া, অভিযানের প্রতিটি ধাপে পর্যালোচনা চালিয়েছে ISRO। সুতরাং এর থেকে সহজেই বলা যায়, ১০০ শতাংশের কাছাকাছি সফলতা পেয়েছে ‘চন্দ্রযান-২’।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...