সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

অবশেষে মুখ খুললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, নারী নিরাপত্তা প্রসঙ্গে কি বললেন তিনি তা জেনে নিন বিস্তারিত খবরে

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ সারা দেশে যখন নারী নিরাপত্তা তলানিতে এসে ঠেকেছে, যখন দেশের মেয়েরা প্রতিনিয়ত শিকার হচ্ছে ধর্ষণের, তখন পুলিশ এবং প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে অবশেষে মুখ খুললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

দেশে নারীরা যেন নিজেদেরকে প্রতি পদে অসুরক্ষিত মনে করছে।বিশ্বাস হারাচ্ছে পুলিশ, প্রশাসন, আদালতের ওপর। ধর্ষণকারী যেমন বাড়ছে প্রতি পদে তেমনই বাড়ছে ধর্ষণকারীর মানসিক বিকৃতি। এমত অবস্থায় সারা দেশ যেন অসহায়তায় ভুগছে। এমন ভয়ঙ্কর পরিস্থিতিতে অবশেষে মুখ খুললেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মহারাষ্ট্রের পুনেতে অনুষ্ঠিত পুলিশ শীর্ষ কর্তাদের একটি বৈঠকে যোগ দিতে গিয়ে তিনি জাতিকে সম্বোধন করেন এবং দেশে প্রতিনিয়ত ঘটা বর্বরতার কথা উল্লেখ করেন।

এদিন বৈঠকে পুলিশ প্রশাসনের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন যে, প্রশাসনকে নারী এবং শিশু সুরক্ষার দিকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। প্রশাসনের প্রতি সাধারণ মানুষের ফেরাতে হবে আস্থা। তিনি সারা দেশের সব স্থানের কথা তুলে ধরেন। তাঁর ভাষণে যেমন স্থান পেয়েছে হায়দ্রাবাদ, তেমনই স্থান পেয়েছে উন্নাও, আবার তিনি বিহার, ত্রিপুরার কথা উল্লেখ করতেও ভোলেননি। বিরোধীপক্ষ লাগাতার তাঁর সরকারকে নিশানা করলেও তিনি বিন্দুমাত্র বিচলিত না হয়ে প্রাশাসনকে কড়া হাতে এই অপরাধকে দমন করতে নির্দেশ দেন।

তিনি পুনেতে অনুষ্ঠিত বৈঠকে পুলিশ এবং প্রশাসনের শীর্ষ কর্তাদের জনগণের আস্থা ভাজন হবার নির্দেশ দিয়েছেন। এই বৈঠকে তিনি যেমন পুলিশ এবং প্রশাসনের অনেক গাফিলতির কথা তুলে ধরেন তেমনই সফল পুলিশ আধিকারিকদের সম্বর্ধনাও জানান। দ্বিতীয় বার দেশে ক্ষমতায় আসার পর অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে অনেক বড় পদক্ষেপ নিয়েছেন মোদী সরকার, কিন্তু নারী নিরাপত্তা ব্যবস্থার কোনও উন্নতি হয়নি। ফলে দেশের এক অংশ তাঁর নেতৃত্বের ওপর প্রশ্ন তুলেছেন। তবে এই বৈঠক খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন অনেকে। এই বৈঠকে নারী নিরাপত্তার জন্য ভবিষ্যতে অনেক নতুন নিয়ম চালু হতে পারে  বলে অনেকে দাবী করেছেন। এখন দেখার অপেক্ষায় দেশের প্রধানমন্ত্রী এবং প্রশাসন কি পদক্ষেপ নেন নারী নিরাপত্তার ক্ষেত্রে।

মন্তব্য
Loading...