দুরন্ত ফর্মে “পেঁয়াজ”; সেঞ্চুরির পর এবার কোন লক্ষ্যে এগোচ্ছে পেঁয়াজের দাম, কম ঝাঁজে বেশি কাঁদাবে আর কতদিন

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ ভাবতে অবাক লাগে, বিয়েতে দামী উপহার দিয়ে সংবাদ শিরোনামে আসা যায়, কিন্তু ৩০ কেজি পেঁয়াজ উপহার স্বরূপ বিয়েতে দিয়েও যে শিরোনামে আসা যায়, সে কথা কি কেউ ভাবতে পারবে ? বেশ কয়েকদিন হল, অন্যান্য সবজির দাম দুরন্ত ফর্মে থাকলেও দিনের শেষের নায়ক কিন্তু সেই পেয়াজই । সরকারি ব্যবস্থা কাজে না লাগায় খুব শিগ্রি পেঁয়াজের দাম ১৫০ টাকা প্রতি কেজি ছাড়িয়ে যাবে জ্যোতিষী না হয়েও একথা যে কেউ ভবিষ্যৎবানী করতে পারবে ।

বাজারে পেঁয়াজের আমদানির যা খবর, তাতে গতকাল মঙ্গলবার  দাম ১০০ টাকা ছাড়িয়ে ১৩০-১৪০ টাকা প্রতি কেজিতে ঠেকেছে ।তবে এই দাম আগামী দু- একদিনের মধ্যেই ১৫০ টাকা ছাড়াতে পারে বলে আশঙ্কা করছে পেঁয়াজ ব্যাবসায়িরা ।  রাজ্যের বেশির ভাগ পেঁয়াজ আমদানি করা হয় নাসিক থেকে । নাসিকের পাইকারি বাজারেই ৪০ টাকা করে পিঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। বিভিন্ন খরচ যুক্ত হয়ে সেই পেঁয়াজ ১৩০-১৪০ টাকা পাইকারি দামে বাংলায় হাজির হচ্ছে । এবার তার সাথে পাইকারি ব্যবসায়ি এবং খুচরো ব্যবসায়ীর লাভের অঙ্ক যোগ করলে হিসাব পরিষ্কার হয়ে যাবে ।

কিন্তু পেঁয়াজের এই দুরন্ত ফর্মের নেপথ্য কারন কি্ ? ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে ফসলের ক্ষতি হওয়ায় এই দর বৃদ্ধি বলে মনে করা হলেও, আকাশ-ছোঁয়া দামের কারণ নিয়ে সরকারের ব্যর্থতাও তুলে ধরছে বিরোধীরা। এখন আশঙ্কার করা হচ্ছে নতুন ফসল না উঠলে পিঁয়াজের দাম কমবে না। লাগাতার  দাম বাড়তে থাকায় কেন্দ্র খুচরা বিক্রেতাদের জন্য পেঁয়াজের স্টক হোল্ডিং সীমা অর্ধেক করে দিয়েছে।

এদিকে রান্না ঘরে পেঁয়াজ গৃহিণীদের চোখের জলের কারন ছিল । এবার পেঁয়াজ ঝাঁজ ছাড়াই মধ্যবিত্ত গৃহস্থদের চোখের জলে, নাকের জলে নাকানি চোবানি খাওয়াচ্ছে । পিঁয়াজের এই দামবৃদ্ধিতে সরকার যে সব ব্যবস্থা নিয়েছে তা আখেরে কোন কাজেই আসেনি । সরকারীভাবে পেঁয়াজের দাম কমার লক্ষণ না থাকায় রফতানি বন্ধ করে কেন্দ্র এখন ডিহাইড্রেটেড পেঁয়াজ রফতানি নিষিদ্ধ করার কথা ভাবচ্ছে । ইতিমধ্যে  খুচরা বিক্রেতাদের জন্য স্টক হোল্ডিং সীমা ১০ টন থেকে ৫ টন এবং পাইকারীদের জন্য ৫০ টন থেকে ২৫ টনে নামিয়ে আনা হয়েছে কেন্দ্রের তরফে।

তবে, ব্যবসায়ী মহল মনে করছে, নতুন যোগান শুরু না হলে পেঁয়াজের দাম কমার সম্ভবনা নেই বললেই চলে ।  নাসিকের বাজারে নতুন পিঁয়াজ আসবে নতুন বছরের প্রথম। ফলে ডিসেম্বের পিঁয়াজের দাম কমার কোনও সম্ভাবনা নেই। সেই জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে গিয়ে ফের পিঁয়াজের দাম স্বাভাবিক হতে পারে।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...