নিজামুদ্দিন কাণ্ডে দেশে করোনা সংক্রমণ ছড়াতে পারে দেড় লাখের বেশী – IIM

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ নিজামুদ্দিন ঘটনায় লকডাউন সত্ত্বেও করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করা কয়েকগুণ বেড়ে গিয়েছে সেই বিষয়ে কোন দ্বিমত নেই । এবার  IIM রোহতক-এর এক চাঞ্চল্যকর রিপোর্টে জানানো হয়েছে দিল্লীর নিজামউদ্দিনে তাবলিঘি জামাতের ধর্মীয় জমায়েতের ফলে  আগামী দিনে দেশে করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত হতে পারেন প্রায় দেড় লাখ ছাড়াতে পারে।

IIM এর রিপোর্টে জানানো হয়েছে,  চলতি সপ্তাহেই অর্থাৎ আগামী ১৫ এপ্রিলের মধ্যে গোটা দেশে করোনা পজিটিভ ১৩০০০ র গণ্ডি পার হতে পারে । আগামী মাসের শুরুতে সেই সংখ্যা কয়েক ধাপে বেড়ে দেড় লাখে পৌঁছে যাবার সম্ভবনা । আর এর পিছনে একমাত্র কারন হিসাবে তাঁরা দাবী করছেন, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে দিল্লীর নিজামউদ্দিনে তাবলিঘি জামাতের জমায়েত এবং সেই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী বেশ কিছু সদস্যের বিবেচকহীন কাজ ।

IIM -এর পক্ষ থেকে অধ্যাপক ধীরজ শর্মা, অধ্যাপক অমোল সিং এবং অধ্যাপক অভয় পন্ত দাবী করেছেন, দিল্লীর তাবলিঘি জামাতের সম্মেলনের পরেই গোটা দেশের করোনা পরিস্থিতির চিত্র সম্পূর্ণভাবে পাল্টে গেছে । এখনও ভারতে স্টেজ ২ পর্যায়ে করোনা পরিস্থিতি রয়েছে । কিন্তু যে কোন সময়ে কোন ভুল পদক্ষেপের জন্য মারাত্মক আকার ধারন করতে পারে ।

কেবলমাত্র  IIM  নয়, নিজামুদ্দিন কাণ্ডে দেশে করোনা পরিস্থিতি যে আমূল পাল্টে গেছে, সে কথা কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকসহ আরও অনেকেই স্বীকার করে নিয়েছেন । উল্লেখ্য, সরকারী নিয়মের কোন প্রকার তোয়াক্কা না করে রাজধানীর বুকে প্রায় ২০০০ বিদেশিসহ সেখানে কিভাবে এত বড় জমায়েত সম্ভব হল তাই নিয়েও অনেক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে ।

পরিসংখ্যান বলছে এই জমায়েতের পর প্রায় ১৭ টি রাজ্যে বেশ কিছু জামাত সদস্য শরীরে করোনা সংক্রমণ নিয়েই ঘুরে বেড়িয়েছে । প্রশাসন থেকে অনেক বোঝানোর পরেও লুকিয়ে থার অভিযোগ পর্যন্ত রয়েছে । দিল্লীর ঘটনার পর অবশ্য করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়ানো এবং সরকারি নির্দেশ অমান্য করে সম্মেলন করার দায়ে দায়িত্বে থাকা  মৌলনা সাদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে ।

জমায়েত ভণ্ডুল হয়ে যাবার পর মৌলনা সাদের এক প্রকার নিখোঁজ হয়ে যান । পুলিশ তন্ন তন্ন করে তল্লাশি চালিয়েও প্রথমে তাঁর কোন সন্ধান পায়নি । পরে নিজে এক ভিডিও জানিয়েছিলেন নিজেকে কোয়ারেন্টাইনে রেখেছেন। শেষ পর্যন্ত দিল্লিতেই তাঁর সন্ধান পাওয়া গেছে । কিন্তু নিজেদের শরীরে করোনা সংক্রমণ নিয়ে কিভাবে জামাত সদস্যরা দিল্লী পুলিশের সাথে অভ্যতা কিম্বা গাজিয়াবাদে এমএমআই হাসপাতালের আইসলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসায় বাঁধা দিয়েছে, সেটি নিয়ে ধন্দে রয়েছে অনেকেই । অনেকেই সন্দেহ করতে শুরু করেছে, তবে কি নির্দিষ্ট কোন পরিকল্পনা নিয়েই  ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতির মধ্যে বিদেশ থেকে এই বিপুল সংখ্যক সদস্য এসেছিল ধর্ম সম্মেলনে যোগ দিতে !

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...