সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

বাংলা চলচ্চিত্রের কোল খালি করে চলে গেলেন চিন্ময় রায়

প্রয়াত হলেন বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম উজ্জ্বল নক্ষত্র চিন্ময় রায়

 

থিয়েটার এর মঞ্চ থেকে অভিনয়ের জগতে পদার্পণ শুরু হলেও, পরবর্তীকালে বড়ো পর্দায়’ও নিজের প্রতিভা সমান দক্ষতায় ফুটিয়ে তুলেছেন তিনি। তপন সিংহের ‘গল্প হলেও সত্যি’ দিয়ে শুরু করে ‘মৌচাক’, ‘বসন্ত বিলাপ’ থেকে সত্যজিৎ রায় এর ‘গুপী গাইন বাঘা বাইন’ এর মাধ্যমে দর্শকের নজর কেড়েছেন তিনি।

১৯৮০ এর সময়ে ‘চারমূর্তি’ সিনেমায় তাঁর অভিনীত ‘টেনিদা’ চরিত্র তাঁকে অমর করে রেখেছে।

 

বহুদিন যাবৎ’ই চলচ্চিত্র জগৎ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন চিন্ময়। বিশেষ করে, স্ত্রী জুঁই ব্যানার্জি প্রয়াত হওয়ার পর অবসাদে ভুগতে থাকেন তিনি।

 

বছর খানেক আগে নিজের ফ্ল্যাটের সামনেই গুরুতর আহত হয়ে পায়ে ও মাথায় জখম হয় তাঁর, তখন থেকেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। এছাড়াও বেশ কিছুদিন যাবৎ’ই বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন।

গত রবিবার রাত ১০টা নাগাদ সল্টলেকে নিজ বাসভবনেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ৭৯ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম পথিকৃৎ চিন্ময় রায়

সোমবার অর্থাৎ আজ-ই তাঁর শেষকৃত্য হবে বলে জানা গেছে।

মন্তব্য
Loading...