বাংলা সিনেমার বিশিষ্ট অভিনেতা স্বরূপ দত্ত চলে গেলেন আমাদের ছেড়ে পরকালের পারে

0

এইতো কিছুদিন হলো তার দুইজন প্রিয় বন্ধু এবং অভিনেতা সমিত ভঞ্জ এবং চিনময় রায় চলে গেছিলেন সবাইকে ছেড়ে । গতকাল চলে গেলেন স্বরূপ দত্ত ।  নিজের বাড়িতে বাথরুমে পড়ে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের জন্য দিন কয়েক আগে স্বরূপ দত্ত ভর্তি হন হাসপাতালে ।  উল্লেখ্য স্বরূপ দত্তের বয়স হয়েছিল 78 বছর । দুখের সাগরে ভাসিয়ে রেখে গেলেন অগুনতি ভক্ত,  স্ত্রী ও পুত্র দত্তকে ।

বুধবার এই বিশিষ্ট অভিনেতার  মৃতদেহ যখন বালিগঞ্জের বাসভবনে আনা হয়,  তখন প্রতিবেশী,  বিভিন্ন দলের রাজনৈতিক নেতা থেকে শুরু করে টলিউডের বিভিন্ন বিখ্যাত ব্যক্তির আক্ষেপ লেগেই ছিল – এমন অভিনেতা এবং এমন নেতা আর কোথাও পাওয়া যাবে না । কাস্তে- হাতুড়ি – তারা’ য়  লাল পতাকায় মোড়া  ছিল উৎপল দত্তের এই  বিখ্যাত ছাত্রের দেহ ।

টুইটারে শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । মরদেহের পাশে বসে পরিচালক গৌতম ঘোষের গলায় ঝরে পরলো স্মৃতির কিছু টুকরো । কোন একটা পার্ক সাধারণ মানুষের হাতের বাইরে যাতে না বেরিয়ে যায় তাঁর জন্য  স্বরূপ দত্ত আন্দোলন শুরু করেছিলেন । তিনি সেই পার্কটিকে  প্রোমোটার এর হাত থেকে বাঁচান ।  সেন্ট জেভিয়ার্স এর অর্থনীতির ছাত্র স্বরূপ তখন শরীর খারাপ নিয়েও প্রোমোটারের বিরুদ্ধে গিয়ে সেই পার্ক সাধারণ মানুষের জন্য রক্ষা করেন।

স্বরূপ দত্তের বেশ কিছু বিখ্যাত ছবি রয়েছে । তার প্রথম ছবি ছিল তপন সিংহ পরিচালিত আপনজন ।  এছাড়াও তার অভিনীত সাগিনা মাহাতো,  হারমোনিয়াম,  অচেনা অতিথি প্রভৃতি বিখ্যাত ছবিতে  নিজের স্বকীয় ভূমিকায় অভিনয় করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন এবং অগুনতি ভক্তদের অকুণ্ঠ প্রশংসা লাভ করেছেন ।

ছেলে সারন বলছিলেন,  “নিজে যেটা সত্যি মনে করতেন,  সেটা বলতেন সাহসের  । সঙ্গে কোনরকম আপস করা বা বিশেষ কোনো সুবিধা পাওয়ার জন্য কোন লবির অংশ হওয়া কল্পনার অতীত ছিল তাঁর কাছে ।  সে কারণে অনেক মূল্য চোকাতে  হয়েছে সারা জীবন ।

উল্লেখ্য এই পাড়াতেই থাকতেন আর একজন বিশিষ্ট অভিনেত্রী রুমা গুহ ঠাকুরতা ।  তিনি অনেক আগে বালিগঞ্জ থেকে মহাপ্রয়াণের পথে যাত্রা শুরু করেছিলেন আজ বালিগঞ্জ স্বরূপ দত্তের মতো একজন উজ্জ্বল সন্তানকে হারিয়ে আবার যেন ম্লান হয়ে গেল ।

আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
মন্তব্য
Loading...