সময়ের সাথে হাত মিলিয়ে

Advertisement

পূজার আগেই রাজ্যে আলুর দাম ৫০ শের কোঠায় ! আশঙ্কা আলু ব্যবসায়ীদের

আলু ব্যবসায়ীরা ধারনা করছেন, দিন যত গড়াবে আলুর দাম ততই বাড়বে ।

0

বং দুনিয়া ওয়েব ডেস্কঃ রাজ্য সরকার যতই হুশিয়ারি দিক না কেন, খোলা বাজারে আলুর দাম নিয়ন্ত্রনের কোন লক্ষন দেখা যাচ্ছে না । রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন, ১৫ই আগস্টের মধ্যে আলুর দাম ২৫ টাকা প্রতি কেজি হবে । কিন্তু বাস্তবে সে কথার কোন প্রতিফলন দেখা যায়নি । এরই মধ্যে আলু ব্যবসায়ীরা আশঙ্কা প্রকাশ করছেন পূজার মধ্যেই আলুর দাম ৫০ টাকা প্রতি কেজি ছাড়িয়ে যেতে পারে ।

চলতি বছর একদিকে আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনা অন্য দিকে করোনা সংক্রমণের জেরে একের পর এক লকডাউনে জেরবার সব স্তরের মানুষ । এর মধ্যে অসময়ে অতি বৃষ্টি ‘মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা’ হিসাবে দেখা দিয়েছে । বিঘার পর বিঘা জমির ফলন নষ্ট হচ্ছে । ঠিক মত পরিবহন ব্যবস্থা না থাকায় চাষি শস্যের দাম পাচ্ছেন না একদিকে, অন্য দিকে বাজারে মধ্যবিত্তদের হৃদ স্পন্দন বাড়িয়ে দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে  সব্জির দাম। বাজারে দামদস্তুর করতেই রীতিমতো চক্ষু চড়কগাছ মধ্যবিত্তদের।

সব্জির মধ্যে আলু আর পেঁয়াজ ছাড়া মধ্যবিত্তের হেঁসেল একেবারে কানা । পেঁয়াজের দাম এখনও পর্যন্ত লাগাম ছাড়া না হলেও আলু এবং অন্যান্য সব্জির দাম ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে । রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যতই আশ্বাস দিন না কেন, আলু ব্যবসায়ীরা ধারনা করছেন, দিন যত গড়াবে আলুর দাম ততই বাড়বে ।

আলু ব্যবসায়ীদের  আশঙ্কা, আগামী দিনে আলুর দাম আর‌ও বাড়তে চলেছে। কিছু অসাধু চক্রের জেরেই বাজারে আলু পর্যাপ্ত পরিমাণে আসছে না বলেও অভিযোগ করেছেন বহু ব্যবসায়ী। চাহিদা এবং জোগানের মধ্যে ফারাক তৈরি করতে চেষ্টা করছে অসাধু ব্যবসায়ীরা। তার জেরেই বাজারে আলুর দামের এই বাড়বাড়ন্ত। অনতিবিলম্বে অসাধু চক্রগুলিকে নিয়ন্ত্রণ না করতে পারলে, পুজোর সময় আলুর দাম প্রতি কিলো প্রায় ৫০ টাকার কাছাকাছি পৌঁছে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা সংশ্লিষ্ট সবার।

ইতি মধ্যে আলু ব্যবসায়ী সংগঠন আলুর দাম নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকারি টাস্ক ফোর্স গঠন করার কথা বলছেন । এই মুহূর্তে দামের বিচারে  সমস্ত বাজারে পেঁয়াজকে রীতিমতো টেক্কা দিয়েছে আলু। খুচরো বাজার তো বটেই পাইকারি বাজারেরও এক‌ই হাল। সেখানেও আলুর দাম চড়া। শহরের বিভিন্ন ছোট-বড় বাজারগুলিতে ঘুরে দেখা গেল, সব্জি কিনতে রীতিমতো নাভিশ্বাস ফেলতে হচ্ছে মধ্যবিত্ত ক্রেতাদের।

লকডাউনের জেরে প্রত্যেকের আর্থিক অবস্থা বেশ শোচনীয় । চাকরীজীবী বাদ দিলে গড় আয় কমেছে প্রায় সকলের । এই পরিস্থিতিতে বাজারে কাঁচা সব্জির অগ্নিমূল্য কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে তাঁদের। কাঁচা সব্জি এবং আলু  খুব সহজে বাজারজাত করার জন্য সরকারী ভাবে পরিবহন এবং অন্যান্য দিকে সুযোগ সুবিধা না বাড়ালে আরও দাম বাড়বে সব কিছুর এমনটাই ধারনা ব্যবসায়ী মহলের ।

মন্তব্য
Loading...