সংগৃহীত ছবি

২০২৩ সালে সারাদেশে ৬ হাজার ৯১১টি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। এসব দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ৬ হাজার ৫২৪ জন। নিহতদের মধ্যে ৯৭৪ জন নারী ও ১ হাজার ১২৮ জন শিশু রয়েছে। আর আহত হয়েছেন অন্তত ১১ হাজার ৪০৭ জন। সড়ক নিরাপত্তা ফাউন্ডেশনের প্রকাশিত দুর্ঘটনা সংক্রান্ত বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশন নয়টি জাতীয় দৈনিক, সাতটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল, ইলেকট্রনিক মিডিয়া এবং সংস্থার নিজস্ব তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে। শনিবার (২৭ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিতে সংগঠনটির কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

সড়ক নিরাপত্তা ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সাইদুর রহমান বলেন, ‘দেশে কোনো যানবাহন ও সড়ক শিশুবান্ধব নয়। অনেক জায়গায় বাড়ি ও স্কুলের পাশে রাস্তা দেখা যায়। এগুলো সড়ক থেকে নিরাপদ দূরত্বে নির্মিত নয়। অনেক জায়গায় স্কুলের কাছে রাস্তার কোনো বাধা বা ওভারপাস নেই। তাই আমরা দিন দিন অপূরণীয় ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছি। রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের তথ্য অনুযায়ী, গত বছর সারা দেশে ৬ হাজার ৯১১টি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। নিহত হয়েছেন ৬ হাজার ৫২৪ জন, আহত হয়েছেন ১১ হাজার ৪০৭ জন। মোট নিহতদের ১৭ শতাংশেরও বেশি শিশু। গত বছর দেশে দুর্ঘটনার সংখ্যা আগের বছরের (2022) তুলনায় বাড়লেও মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। দুর্ঘটনায় শিশু মৃত্যুর সংখ্যাও গত বছরের তুলনায় কিছুটা কমেছে।

গবেষণায় দেখা গেছে যে 40 শতাংশেরও বেশি শিশু যাত্রী বা পণ্যবাহী বাস, ট্রাক এবং ব্যক্তিগত গাড়ির ধাক্কায় মারা গেছে। এরপর আঞ্চলিক বা গ্রামীণ সড়কের যানবাহন, সিএনজি চালিত অটোরিকশা ও ইজিবাইকের ধাক্কায় শিশুটির মৃত্যু হয়। বেপরোয়া মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার কারণে প্রায় 16 শতাংশ শিশু প্রাণ হারিয়েছে। স্থানীয়ভাবে তৈরি নছিমন, ভটবতী বা মাহিন্দ্রা প্রায় ৭ শতাংশ শিশুকে হত্যা করে।






সর্বশেষ খবর আগামী মঙ্গলবার সারাদেশে কালো পতাকা মিছিল করবে বিএনপি
পরবর্তী খবর বিএনপিকে আর বাড়তে দেওয়া যাবে না: ওবায়দুল কাদের


Nitya Sundar Jana is one of the Co-Founder and Writer at BongDunia. He has worked with mainstream media for the last 5 years. He has a degree of B.A from the West Bengal State University.

Leave A Reply